লেডিস সুজ নিয়ে যত কথা

লেডিস সুজ মূলত: হাটার সুবিধার উদ্দেশে তৈরি করা হয়। কিন্তু  সু-জুতা ক্রয় করার সময়-এটি আপনার উচ্চতা বা সাজসরঞ্জাম এর সাথে মানানসই কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে।

মেয়েদের সু জুতার সাথে কি রকম পোশাক পরলে আকর্ষণীয় লাগবে সেদিক গুলো জেনে সু জুতা কিনুন। এতে আপনার বুট বা সু জুতা যদি কম দামী ও নরমাল ডিজাইনের হয় তাও আপনাকে দেখতে ভালো লাগবে।

অনেক মেয়েরা সু জুতার পরিবর্তে কনভার্স জুতা ব্যবহার করে। মেয়েদের জুতার সাইজ এবং স্টাইল অন্যরকম। তবে সু জুতার ক্ষেত্রে পুরোটাই এক।

সঠিক জুতার সাইজ ও পছন্দনীয় সু জুতা কিনতে আমাদের এই গাইডলাইনটি আপনার কাজে আসবে।

বিভিন্ন ধরনের মেয়েদের জুতার ধরন এবং প্রতিটি ষ্টাইল সর্ম্পকে জানার চেষ্টা করুন। ফ্যাশন, কেনার ধরন, পন্যের গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ জানুন। এতে আপনি নিজেই সঠিক ভাবে আপনার পছন্দের সু জুতা কিনতে পারবেন।

মেয়েদের সু কেনার টিপসঃ 

ফ্লাট সুজ

  • এইধরণের বুট হলো- যেগুলোতে হিল নেই বা অপেক্ষাকৃত কম হিল ।
  • ফ্লাট জুতাগুলো দেখতে মেয়েলী ও কোনো উচ্চতা থাকে না।
  • অনেকে আরামের জন্য ফ্ল্যাট জুতা ব্যবহার করে থাকে।
  • ফ্লাট জুতার সাথে সামান্য হিল আপনাকে পা ব্যাথা থেকে মুক্তি দেবে।
  • ফ্লাট জুতাগুলো নিয়মিত ব্যবহারের জন্য বেশী প্রচলিত এবং দেখতে অনেক আকর্ষণীয়।
  • মহিলাদের এই জুতাগুলো ন্যারো সংকীর্ণ প্যান্ট এবং স্কার্ট এর সাথে সুন্দর দেখায়। প্যান্ট এর দৈর্ঘ্য ফ্লাট জুতার উপর পর্যন্ত হবে।
  • মাঝারি দৈর্ঘ্যের স্কার্ট এর সাথে সামান্য হিল যুক্ত ফ্লাট জুতা অনেক বেশি মানানসই।

আপনার পছন্দের সু জুতা, কনভার্স জুতা বা মেয়েদের জুতা খুঁজতে সাদমার্টের কালেকশন গুলো এক ঝলকে দেখে নিতে পারেন।

যারা স্টাইলের জন্য সু জুতা ব্যবহার করবেন তাদের জন্য পরামর্শ-

  • কিছু ষ্টাইল সবার জন্য প্রযোজ্য নয়। আপনার স্টাইল এবং জীবনধারার সাথে যে স্টাইল মানানসই সেটিই করুন।
  • ফ্যাশন এর সাথে মিল রেখে মেয়েদের জুতা পছন্দের একটি সহজ উপায় হচ্ছে দৃষ্টিনন্দিত ও ফ্লাট জুতার ডিজাইন। এটি আপনাকে ফ্যাশনেবল লুকও দিবে আবার পায়ের ব্যাথা থেকে মুক্তি দিবে।
  • অনুষ্ঠান এবং পরিবেশের উপর ভিত্তি করে মেয়েদের জুতা নির্বাচন করা উচিৎ। উদাহরণ স্বরুপ সন্ধ্যাকালীন জুতা অফিসে বা দিনে কেনাকাটার সময় ব্যবহার করা উচিৎ নয়।
  • জুতা, বেল্ট এবং হ্যান্ডব্যাগ মিল করে ব্যবহার করতে পারেন, কিন্তু এটা কোনো ফ্যাশনের নিয়ম না। তবে যে কোনো দুইটি কালার বা ডিজাইন সদৃশ্য হলে ফ্যাশনে অতিরিক্ত মাত্রা যোগ করবে।
  • জিপার্সের, জরি, বোতাম, আচঁল, ধাতু কাজ, বাধাঁন কাজ এবং অন্যান্য সাজ-সজ্জাকে সুস্পষ্ট ভাবে ফুটিয়ে তুলুন। গাঢ় রং, প্রিন্ট, অস্বাভাবিক আকরা, বস্ত্র ইত্যাদি আপনার জুতাকে কেন্দ্রবিন্দু করে তুলতে পারে।
  • অতিরিক্ত নকশা করা জুতা দেখতে যেমন ভালো লাগেনা তেমনি মানানসইও নয়।
  • এক রঙ বিশিষ্ট বা নিরপেক্ষ সাজসজ্জার নির্দিষ্ট ধরনের মেয়েদের জুতা আর্কষণীয়তা হারায়। অপরদিকে সর্বজন স্বীকৃত রুচিশীল মুদ্রিত জুতাগুলো আর্কষণীয়।
  • ধাতুর তৈরী উচ্চ মানের জুতা মহিলারা পড়ে থাকেন মসৃণতা ও আভিজাত্য প্রর্দশনের জন্য।
  • লম্বা সাইজের পায়ে উঁচু হিল পরলে দেখতে খুব স্লিম লাগে।
  • নিটোল হিল এবং শ্যামকাপড়ের তৈরি জুতা মোটা গোড়ালিকে অনেক চিকন করে প্রদর্শিত করে।·
  • সঠিক রং এর জুতা আপনার সাজসজ্জাকে ফুটিয়ে তুলে।
  • বাস্তবিকভাবে কালো জুতা সর্বস্তরে মানানসই। রঙিন জুতা কালো জুতার তুলনায় সামঞ্জস্য করা কঠিন, কিন্তু যে কোনো ধরণের সাজসরঞ্জাম এর সাথে কালো জুতা মানানসই।
  • সাজসরঞ্জাম এর উপকরন এর সাথে জুতার রং মিলিয়ে পড়লে আর্কষণীয় দেখায়।
  • তামাটে, বাদামী ও খাকি কাপড়ের জুতা পড়লে মহিলাদের লম্বা এবং চিকন দেখায়।

কিভাবে পছন্দ করবেন আরামদায়ক মেয়েদের জুতা-

  • উপরের অংশ-  চামড়া, সোয়েড চামড়া ও ফেব্রিক দেখে কিনবেন। এই ধরণের জুতা পায়ে ফুসকা পড়ার সম্ভাবনা কমায়।
  • সোলস-  চামড়া এবং রবার শ্রেষ্ঠ উপকরন যা শক শুষে বাধামুক্ত চলাচলের সাহায্য করে।
  • ইনসোলস- চামড়া এবং সোয়েড চামড়ার ফুট শ্বাস ফুসকা তৈরির সম্ভবনা কমাতে সাহায্য করে।
  • হিল- দুই (২”) ইঞ্চি উচু, সরু হিলের চেয়ে পুরু হিল সবচেয়ে বেশি আরামদায়ক।
  • আকার- মহিলাদের জুতার মাপ ডিজাইন এবং ষ্টাইল অনুযায়ী পরিবর্তিত হয়। তাই জুতা দেখে মাপ মতো জুতা ক্রয় করুন।

মানানসই এবং পরিচর্যা বিযয়ক উপদেশ-

  • সব সময় একই জুতা ব্যবহার না করাই ভালো। জুতা অনেক দিন ঠিকে যদি ব্যবহারের মধ্যবর্তী সময় জুতা পুরুপুরি শুকিয়ে যায়।
  • পা খুব কম সময়েই সমান আকারের হয়। তাই যার পায়ের আকার বড় তার পায়ের মাপে জুতা ক্রয় করাই উওম।
  • পায়ের আকার বয়সের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয়। বিশেষ করে গর্ভাবস্থায় এবং ওজন ওঠানামা করলে । তাই জুতা কেনার আগে পায়ের সাইজ যাচাই করে নেয়া ভালো। ·
  • জুতা দীর্ঘদিন ব্যবহার করতে হলে সঠিক জুতার যত্ন নিতে হবে।

আশা করি আমাদের এই টিপস গুলো আপনার কাজে লাগবে। আরো সব ধরণের টিপস পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। প্রবন্ধটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Home
Call Us
Message Us
Account
0